জানার আছে অনেক কিছু!

আসসালামু আলাই কুম। প্রিয় পাঠক’ “জানার আছে অনেক কিছু” বাংলা ব্লগে আপনাকে স্বাগতম।

শুক্রবার, ২২ মে, ২০১৫

অশ্লীলতার দায়ে পরীমনি অভিনীত ‘নগর মাস্তান’ বাতিল করল সেন্সর বোর্ড

বিনোদন ডেস্ক
সম্প্রতি চিত্রনায়িকা পরীমনি অভিনীত 'নগর মাস্তান' অশ্লীলতার দায়ে বাতিল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর

বোর্ড। ছবিটি পরিচালনা করেছেন রকিবুল আলম রাকিব। গত ৫ ফেব্রুয়ারি সেন্সর বোর্ডে এটি জমা পড়ে। কিন্তু বোর্ডের সদস্যরা ছবিটি দেখার পর প্রদর্শন অযোগ্য ঘোষণা করে। ছবিতে আরো অভিনয় করেছেন জায়েদ খান, শাহরিয়াজ, তিতান, সাজিয়া ইসলাম প্রমুখ। পরিচালক রকিবুল আলম বলেন, ‘সেন্সর বোর্ডের সদস্যরা ছবিটি দেখার পর ছবির প্রযোজক আপিল করলে দৃশ্য কর্তন ও পুনরায় দৃশ্যধারণ করার শর্তে তা মঞ্জুর করা হয়। আশা করছি, ছবিটি সংশোধন করে জমা দিলে মুক্তি পাবে।’ জানা যায়, শর্ত মতো কাজ শেষে দুই সপ্তাহ আগে ছবিটি আবারো জমা দেয়া হয়েছিল। কিন্তু একই অভিযোগে এটি আবারো বাতিল করা হয়েছে। এবার দেখার পালা শেষ পর্যন্ত কি হয় তার ‘নগর মাস্তান’ ছবির।
আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুণ।

 এই ব্লগে পড়তে কি সমস্যা হয়?আপনার কি টাকা বেশি খরচ হয়ে যায়?

আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোন লাভ নেই :মাহিয়া মাহি

আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন।
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg
আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ এবং আমার বিরুদ্ধে যা লেখালেখি হচ্ছে তা একজনের ষড়যন্ত্রেই হচ্ছে’ বলে দাবী করেছেন সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে সেই একজনটা কে? তা তিনি খোলাসা করেন নি। সাম্প্রতিক সময়ে পত্র-পত্রিকার ভূমিকা এবং তার ব্যক্তিগত কিছু বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ায় কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এতো কিছুর পরও তিনি সব কিছু উতড়ে যাবেন বলেই মনে করেন। এদিকে মাহি বর্তমানে মিডিয়ার সাথে খুবই হিসেব কষে কথা বলছেন। কথা বলার সময় বেশ সতর্কতার আশ্রয় নিচ্ছেন, যাতে করে মুখ ফসকে কোন কথা বের না হয়ে যায়। তবে তার কথা-বার্তায় জড়তা লক্ষণীয়। কারো ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। একজন সকল কলকাঠি নাড়ছেন নেপথ্যে। এমন দাবী তিনি করলেও কে সে একজন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তার নাম জানি। কিন্তু আমার মুখ দিয়ে বলতে চাই না। আমার আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে কোনও লাভ নেই। দর্শক জানে আমি কেমন নায়িকা।’ উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া একটা সময় পার করেছে, যখন মাহিকে তারকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রাণান্তকর পরিশ্রম করেছে। কিন্তু তাকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি কুক্ষিগত করে রাখে। কারও ছবিতে কাজ করতে দেয়া হয়নি। এক সময় গুজব রটে যায়, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আজিজুর রহমান তাকে বিয়ে করেছেন। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন শীষ মনোয়ার নামের একজন। তিনি অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। মাহি এখন এসব ঘ্যাড়াকলের বাইরে। প্রশ্ন কোনও নির্মাতাই জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে মাহিকে নিয়ে ভাবতে পারছেন। সম্প্রতি তার একটি সেক্স ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিলিজ হওয়ার পর নির্মাতাদের মধ্যেও তার সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। মাহি সেটাকে তেমন একটা পাত্তা দিচ্ছেন না। এছাড়া তার শিথিল পোশাকের কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে ইতোমধ্যে। এই নিয়েও তিনি উচ্চবাচ্য না করে শুধু ‘একজনের ষড়যন্ত্র’ বলে বক্তব্য শেষ করেছেন। - See more at: http://amarbangladesh-online.com/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%A1%E0%A6%BF%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95/#.VV6svsk6Fkg

বৃহস্পতিবার, ৩০ এপ্রিল, ২০১৫

সহবাসের সব চেয়ে ভালো ৪৩টি আসনের ছবি দেখুন

গর্ভবস্থায় স্ত্রীর সাথে সহবাসের সব চেয়ে ভালো ৮টি আসনের ছবি আমরা এখানে শেয়ার করেছি। 
আপনি ছবি গুলো ডাউনলোড করে নিন। 
ছবি ১ ডাউনলোড করুণ
ছবি ২ ডাউনলোড করুণ
ছবি ৩ ডাউনলোড করুণ
ছবি ৪ ডাউনলোড করুণ
ছবি ৫ ডাউনলোড করুণ
ছবি ৬ ডাউনলোড করুণ
ছবি ৭ ডাউনলোড করুণ
ছবি ৮ ডাউনলোড করুণ
বাকী আরো ৩৫ টি আসনের ছবি এখান থেকে ডাউনলোড করুণ।=( সহবাসে ৩৫ টি আসন দেখে নিন।(ছবি) )
শেয়ার করুণ।

বুধবার, ২৯ এপ্রিল, ২০১৫

Flavoured, ribbed or dotted – which type of condom is right for you?

We are inundated with choices for everything – even the type of condom we use! How many times have you been to a pharmacy and wondered which one should you really pick? Though we essentially use this contraceptive method to prevent unwanted pregnancies and sexually transmitted diseases, its manufacturers would like us to believe that condoms also help increase pleasure between the sheets and so there are different variants available in the market. We give you the low-down on the different types of condoms and which one is best-suited for you.
Dotted condoms
If you do not want to opt for the plain and boring condom type, you can try the dotted variant. These condoms have a dots-like pattern on them to increase the stimulation for more pleasure during sexual intercourse. Avoid using them if you have broken skin or very sensitive skin as it can lead to a rash. Did you know condoms could have these side-effects?
Ribbed condoms
Similar to dotted ones, ribbed condoms have bumps on them to increase pleasure. Some even have these bumps at the bottom of the condom to create clitoral stimulation as well during intercourse. This makes sex more pleasurable for the woman. You may skip this type if you find it to be too rough for your liking. Are you using condoms the right way? Watch out for these 10 common mistakes.
Ultra-thin condoms
If you are someone who feels sex is less pleasurable after wearing a condom, you should opt for the ultra-thin variety. As the name suggests, these are slightly thinner than the usual ones which make the sensations more pleasurable during intercourse. But beware of condom tear. If you do not want to wear a condom, your woman can try female condoms.
Flavoured condoms
In the mood for oral sex? Spice things up with flavoured condoms. These condoms are flavoured with an essence of fruity ingredients such as strawberry, mango, banana, etc. Some companies also offer flavours such as chocolate, coffee, vanilla and more. If you have very sensitive skin, you can stick to the regular kind during vaginal penetration as flavoured ones may cause irritation.
Extra pleasure condoms
Want to delay climaxing too early? There are specialised condoms you can use. These condoms meant to help you last longer during sexual intercourse contain benzocaine. This helps numb the penis for a while by dulling the sensation in the nerve that helps men ejaculate. This in turn prevents premature ejaculation. But it can have side-effects such as irritation, rashes, itching and in worst cases breathing difficulties. If this happens, you need to discontinue using this type and see a doctor.
Though there are several types of condoms, make sure you pick something that suits both you and your partner. You can also opt for other contraceptive methods. Click here to know more.
Image source: Shutterstock

এবার মামা ধারণ করলো ভাগ্নীর নগ্ন ভিডিও


যেমন মামা, তেমনি ভাগ্নী। মামা ভাগ্নীর  নগ্ন ভিডিও ধারণ করে আর ভাগ্নীও তাতে কোনও ভ্রুক্ষেপ করেনি বরং তিনি বেজায় খুশি। একে বলে গুণে ধরা সমাজের চিত্র। আমি এদের সম্পর্কে কি বলবো? আমি ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। যা বলার বলার আপনারাই বলেন। এটা তো স্পষ্ট পর্ণগ্রাফীর আইনের লঙ্ঘন। আমি চাই ভিডিতেও যে মেয়েকে দেখানো হয়েছে তাকে খুজে বের করা হোক। তাকেই খুজে বের করলেই মূল অপরাধী বের হয়ে আসবে।  আমরা আপনাদের কাছে ভিডিও প্রথম অংশ শেয়ার করেছি। Download Video,  অডিওতে শুনেন সম্পূর্ণ কথোপকথন Download Audio.mp3
 

আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুণ।

সোমবার, ২৭ এপ্রিল, ২০১৫

স্ত্রী বোন ও নিজের মেয়েকে দিয়ে পতিতাবৃত্তি !

নিউজ ডেস্ক  : রাজস্থানে সাধারণ মানুষের উপার্জন দিনে মাত্র এক ইউরো৷ দারিদ্র্যের হাত থেকে রক্ষা পেতে রাজস্থানের নাট এবং কাঞ্জর গোষ্ঠীর মানুষরা এগিয়ে গেছে পতিতাবৃত্তির দিকে৷ এর শিকার হচ্ছে শিশুরাও৷ ভারতের রাজস্থানে প্রতি বছর হাজার হাজার পর্যটক আসে৷ প্রাসাদ ছাড়াও বিভিন্ন রঙ-বেরঙের হাতের কাজ দেখে তারা মুগ্ধ হয়৷ কিন্তু এরপরেও রাজস্থান ভারতের দরিদ্রতম রাজ্যগুলোর মধ্যে একটি৷

কাঞ্জর গোষ্ঠীর পুরুষরা খুবই কম অর্থ উপার্জন করে৷ বেশির ভাগ সময়ই তারা পতিতাদের ভাড়া দেয়ার কাজ করে৷ আর এসব পতিতা হচ্ছে তাদের স্ত্রী, বোন এবং নিজের মেয়ে৷ কাঞ্জর সম্প্রদায়ের মেয়েদের সামনে দুটি পথ খোলা থাকে৷ বিবাহিত জীবন অথবা পতিতাবৃত্তি৷ সুরভী দয়াল দিলেন কষ্টকর একটি তথ্য,‘‘যখন এসব মেয়ের বয়স ১০ বা ১২ তখনই সিদ্ধান্ত নিয়ে নেয়া হয়, কে কী হবে৷ মেয়েটি যদি খুব চটপটে হয়, কথাবার্তায় ঝটপট হয়, দেখতে সুন্দরী হয় – তাহলে তাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় পতিতাবৃত্তির দিকে৷ কিন্তু একটি মেয়ে যদি খুব লাজুক হয়, দেখতে সুন্দরী না হয় অথবা মেয়েটি যদি খুব মোটা হয় তাহলে তাকে বিয়ে দিয়ে দেয়া হয়৷”

এভাবে গত কয়েক প্রজন্ম ধরে রাজস্থানের বেশ কিছু গোষ্ঠীর মেয়েরা পতিতাবৃত্তির সঙ্গে জড়িত৷ অত্যন্ত দুঃখজনক হলেও সত্যি যে মাত্র ১৪ বছর বয়স থেকেই অনেকে যৌনকর্মী হিসেবে কাজ শুরু করে৷ এর মূল কারণ হল, যেভাবেই হোক পরিবারকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে, টিকিয়ে রাখতে হবে৷ ইদানিং বেশ কিছু সংস্থা এগিয়ে এসেছে৷ এসব বাচ্চা মেয়েদের সাহায্য করতে চাইছে, বোঝাতে চাইছে যে পতিতাবৃত্তিই একমাত্র পথ নয়৷

মুম্বই’এর একটি এনজিও-র নাম সুমিত্রা ট্রাস্ট৷ এই সংস্থাটি জানিয়েছে, রাজস্থানের প্রায় বারোশো মহিলা মুম্বইয়ে পতিতালয়ে কাজ করছে৷ আর এই পেশায় তারা প্রতিনিয়ত সম্মুখীন হচ্ছে একাকীত্ব, এইডস এবং অন্যান্য নানা ধরণের অসুখ-বিসুখের৷

পিংকি যদিও এখন আর যৌনকর্মী হিসেবে কাজ করছে না, কিন্তু তার ছোট তিনটি বোন এবং তার ১৬ বছরের মেয়ে এই পেশায় কাজ করছে৷ বেঁচে থাকা, পরিবারকে বাঁচিয়ে রাখাই মূল উদ্দেশ্যে৷ এরা সবাই কাঞ্জর সম্প্রদায়ের৷ রাজস্থানের প্রাচীন অনেক সম্প্রদায়ের মধ্যে কাঞ্জর একটি৷ এছাড়া নাট সম্প্রদায়ও পতিতাবৃত্তিকে পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছে৷


দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা করছেন সুরভী দয়াল৷ নাট আর কাঞ্জর সম্প্রদায়ের বিভিন্ন দিক, তাদের বেঁচে থাকা এবং সংগ্রাম হচ্ছে তাঁর গবেষণার মূল বিষয়৷ সুরভী দয়াল বললেন,‘‘অনেক অনেক আগেই থেকেই তারা এ ধরণের নাচ-গানের মাধ্যমে মনোরঞ্জনের ব্যবস্থা করতো৷ বিভিন্ন অনুষ্ঠানে, বিয়েতে তাদের ভাড়া করে নিয়ে যাওয়া হত নাচ-গানের জন্য৷ তাদের নির্দিষ্ট করে স্থায়ী কোন থাকার জায়গা ছিল না৷ তবে ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসনের সময় তাদের ‘অপরাধী’ হিসেবে দেখা হত৷ পুরো গোষ্ঠী অপরাধ করে বেড়ায় – এমন একটা ধারণা চালু করা হয়েছিল৷ সবাই সেটাই বিশ্বাস করেছিল৷ এরপর তারা বিভিন্ন গ্রামে গ্রামে নাচ-গানের অনুষ্ঠান করা বন্ধ করে দেয়৷ বেঁচে থাকার একমাত্র সম্বল একেবারে হারিয়ে যায়৷ এর ফলে তারা পুরোপুরি পতিতাবৃত্তির দিকে ঝুঁকে পড়ে৷” By সময়ের কণ্ঠাস্বর
আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুণ।-

যেসব ভুল থেকে দূরে থাকা উচিত

আমরা নিজের অজান্তেই অনেক ভুল করে বসি। অভ্যাস কিংবা সময়ের স্বল্পতা থেকে ওইসব ভুল হয়ে থাকে। আর এতে ক্ষতি হয় আমাদেরই। তাই অবশ্যই ওইসব ভুল এড়িয়ে চলতে হবে। আমাদের প্রতিদিন যে ভুলগুলো হয়, তার কয়েকটি নিচে তুলে ধরার প্রয়াস পেয়েছি।
ফ্লস ব্যবহার না করা: অনেকেই দাঁত পরিষ্কারের জন্য শুধু ব্রাশ করেন।তবে ব্রাশের মতোই গুরুত্বপূর্ণ হলো ফ্লস (দাঁত পরিষ্কারের জন্য এক রকম সুতো) ব্যবহার। কারণ টুথব্রাশ অনেক সময় দাঁতের মধ্যবর্তী স্থানে জমে থাকা খাদ্যকণা পরিষ্কার করতে পারে না। সে ক্ষেত্রে ডেন্টাল ফ্লস দিনে একবার ব্যবহার করলে দাঁতের মাঝে জমে থাকা খাদ্যকণা পরিষ্কার হয়ে যায়। নিয়মিত ফ্লস না করলে সহজেই দাঁতে গর্ত হয় এবং ব্যথা ও প্রদাহ তৈরি করে। তাই অবশ্যই এ ভুলটি এড়িয়ে চলা উচিৎ সবারই।
ভারি ব্যাগ বহন : কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়াদের বই-খাতা নেওয়ার জন্য প্রতিদিন ভারি ব্যাগ বইতে হয়। চাকরিজীবীদেরও অনেক সময় প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের ভারি ব্যাগ টানতে হয়। কিন্তু কাঁধের একপাশে ভারি ব্যাগ বহন করলে মেরুদণ্ড ও শরীর ভারসাম্য হারায়। এরফলে পিঠে ব্যাথা হতে পারে।
নির্দিষ্ট সময়ে না ঘুমানো: প্রত্যেকের জন্য ঘুম খুবই গুরুত্বপূর্ণ। মস্তিষ্ককে বিশ্রাম দেওয়ার জন্য ঘুম প্রয়োজন। তাই প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়ে ঘুমাতে যাওয়া উচিত। অনেকেই দেরিতে ঘুমাতে যান অথবা খুব অল্প সময় ঘুমান। তারা ভাবেন, পরে বেশি সময় ঘুমিয়ে তা পুষিয়ে নেবেন। বাস্তবতা হলো, নিয়ম করে না ঘুমালে যে ক্ষতি হয়, বাড়তি সময় ঘুমিয়ে তা পুষিয়ে নেওয়া যায় না।
নাস্তা না করা : সকালের নাস্তা সারাদিনের যেকোন খাবারের চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। দিনের শুরুতে নাস্তা শরীরে সারাদিনের প্রয়োজনীয় শক্তি যোগান দেয়। আর নাস্তা না করলে হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ে অনেকটাই। তাই যদি সকালে নাস্তা না করার অভ্যাস থাকে তবে তা পরিত্যাগ করা উচিৎ।
অতিরিক্ত ব্যায়াম : ব্যায়াম করা ভালো; কিন্তু অতিরিক্ত ব্যায়াম করা ভালো না। অতিরিক্ত ব্যায়াম শরীর সুস্থ রাখার চেয়ে শরীরকে অনেক বেশি অসুস্থ করে দেয়। এমনকি নিয়মিত অতিরিক্ত ব্যায়াম করলে নানা ধরনের অসুখ দেখা দিতে পারে। অতিরিক্ত ব্যায়ামের কারণে সারাক্ষণ ক্লান্তি লাগতে পারে, ঘুম কম হবে এবং অল্পতেই বিরক্তির উদ্রেগ হতে পারে। সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুণ।

আধুনিক সম্পর্ক খুব সহজে কেন ভেঙে যায়?

আগের মতো ভালোবাসার আকুল প্রাণ আর চোখে পড়ে না।এখন যখন  যেখানে ইচ্ছে নর-নারী সম্পর্ক গড়ে তুলে। একটু এদিক-সেদিক হলেই সব শেষ। আজ সম্পর্ক হলো, কাল তাতে বিচ্ছেদ; এমনটাই যেন হালের ফ্যাশন। হুটহাট পরস্পরের মাঝে ঝগড়া, সম্পর্ক ভাঙা যাওয়া ইত্যাদির জন্য জীবনে নেমে আসে ঘোর হতাশাও। কিন্তু কেন এমন হয়? আগের মতো কাছে আসার গল্প কেন হয় না? কেন আগের মতো ভালোবাসতে পারে না বা ভালোবাসার মানুষটির সঙ্গে জীবন পার করতে পারে না? সত্যি বলতে মানুষের মানসিকতা এখন আগের মতো নেই। দিনকে দিন তাতে পরিবর্তন আসছে। এখন মানুষ ভালোবাসার গূঢ় অর্থই বুঝার চেষ্টা করে না। ভালোবাসার যে বিশেষত্ব আছে তা তাদের মাথায় থাকে না। ভালোবাসা এখন বস্তুবাদী হয়ে গেছে। পারস্পরিক ভোগবিলাসেই সবাই মত্ত এখন।  মূলত অনেকগুলো কারণে আধুনিককালের সম্পর্কগুলো সহজেই ভেঙে যায়। নিচে এমন কিছু কারণই তুলে ধরার প্রযাস পেলাম। শারীরিক সম্পর্ককে প্রাধান্য দেয়া:  আজকালকার যুগে এই বিষয়টি এতো বেশি উন্মুক্ত হয়ে গিয়েছে যে মানুষ শুধুমাত্র শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলার জন্যই প্রেমের সম্পর্ক তৈরি করে। আর কার্যসিদ্ধি হলেই সম্পর্ক শেষ। কিংবা যদি কার্যসিদ্ধি নাও হয় তাহলেও সম্পর্ক থাকে না। হঠাৎ পাওয়া কিছুতে সহজে বিশ্বাস করা:  ইদানিংকার অল্প বয়েসি সকলেরই এই সমস্যা রয়েছে। ভবিষ্যৎ নিয়ে একেবারেই না ভেবে; বর্তমানে কতোটা কি পেয়ে যাচ্ছেন, তার উপরেই মানুষ চিনে বিশ্বাস করে ফেলেন অনেকে। ফলে পরবর্তীতে যখন পরিবর্তন আসে তখন বিশ্বাস উবে যায় এবং তখনই সম্পর্কে ভাঙন ধরে।  শুধুই সময় কাটানোর মানসিকতা:  আজকালকার ছেলেমেয়েদের চিন্তা ভাবনাই পরিবর্তিত হয়ে গিয়েছে। প্রেম করে একসাথে চিরকাল থাকার চিন্তা অনেককেই কম করতে দেখা যায়। বরং ডেটিং করে সময় কাটানোতেই যেনো সকলের আগ্রহ বেশি। আর যখনই এই দিকটাতে সমস্যা হয় তখনই ব্রেকআপের ঘণ্টা বাজে। সবকিছুকে নাটক বা সিনেমার মতো ভাবা:  ছোটবেলা থেকেই নাটক সিনেমায় সুখী জীবন ও ভালোবাসা দেখে অনেকের মনে ধারণা হয়ে গিয়েছে জীবনটাও এমনই হবে, কিন্তু বাস্তবে যখন এমনটি হয় না তখন সঙ্গীর দোষ ধরা শুরু করে দেন। যার কারণে খুব সহজেই সম্পর্কে ভাঙন চলে আসে। প্রতিশ্রুতি থেকে দূরে থাকা:মানুষের সহ্য ক্ষমতা এবং ধৈর্য দুটোই কমে গিয়েছে। যার ফলে কেউ কারো জন্য কম্প্রোমাইজ করতে চান না। আগের মতো করা তো অনেক দুরের ব্যাপার একটু ছাড়ও দিতে চান না অনেকেই। সুতরাং মতের মিল না হলে কম্প্রোমাইজ না করে ব্রেকআপের সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন অনেকই। সবসময় অতিরিক্ত উত্তম কিছুর খোঁজ করতে থাকা:  একটি সম্পর্কে থেকেও নজর কিন্তু সব সময় ঘুরতে থাকে পারফেক্ট কিছু খোঁজার পেছনে। আজকালকার যুগে এটিই নজরে পড়ে বেশ। আর একারণেই একের পর এক সম্পর্ক ভাঙন দেখা যায়। বিষয়টি কিছুই নয়, শুধুই জীবনে একজন পারফেক্ট সঙ্গী খোঁজার ঝামেলা। নিজের কাজের জন্য সঙ্গীকে অবহেলা করা: আধুনিক এই যুগে মানুষ জীবন যাপনের জন্য এতো বেশি ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন যে সঙ্গীকেও দেয়ার মতো সময় খুঁজে পান না। কিন্তু মূল ব্যাপারটি তেমন নয়। সঙ্গীকে প্রাধান্য দিলে দেয়াই যায়, কিন্তু কাজটা করতে গিয়ে সঙ্গীর দিকে তাকান না অনেকেই, ভাবেন ‘সে তো আমারই’। এতেও কিন্তু সম্পর্কে অনেক সময় ভাঙন চলে আসে। ভালোবাসার প্রকৃত অর্থ বুঝতে না পারা: ইদানীংকালের মানুষের  প্রেম ভালোবাসার খেলা দেখলে মনে হয় না,তারা ভালোবাসার আসল অর্থ কি তা জানেন। ভালোবাসা অনেক পবিত্র, অনেক বেশি ত্যাগের তা এখনকার মানুষ ভুলেই গিয়েছেন। আজকালকার যুগে ভালোবাসা শুধুই সময় কাটানোর বিষয়। আর একারণেই এতো হুটহাট সম্পর্কে ভাঙন আসে। সূত্রঃ elitedaily   
আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুণ।

বিজ্ঞাপন

Recent Posts